ফ্রিল্যান্সিং কোর্স / আমাদের সার্ভিস

ওয়েবসাইট কিভাবে তৈরী করতে হয়।ওয়েবসাইট কিভাবে খুলবো

আজকে আমরা জানবো কিভাবে ওয়েবসাইট বানাতে হয়। আপনি যদি আপনার নিজের বিজনেসের জন্য বা নিজের জন্য একটি ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট তৈরী করতে চান তাহলে এই পর্বটি আপনার জন্য।

অনেকেই জানে না একটি ওয়েবসাইট কিভাবে খুলতে হয় বা ওয়েবসাইট কিভাবে বানাতে হয়। আজকের পর্বে আমরা একদম শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সবকিছু জানবো।

তো চলুন শুরু করা যাক,

সাধারণত যেকোনো ওয়েবসাইট দুইভাবে তৈরি করা হয়।

  1. প্রোগ্রামিং ভাষা ব্যবহার করে
  2. ওয়েবসাইট সফটওয়্যার ব্যবহার করে
প্রোগ্রামিং ভাষা ব্যবহার করে ওয়েবসাইট কিভাবে বানাতে হয়

প্রোগ্রামিং ভাষা ব্যবহার করে যে ধরনের ওয়েবসাইট তৈরী করা হয় সেটাকে বলে কাস্টম ওয়েবসাইট

এই ধরনের ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য যেকোনো এক বা একাধিক প্রোগ্রামিং ভাষা ব্যবহার করা হয়। যেমন, PHP, Python, JavaScript, Java, C#, C++, Ruby।

এগুলোর থেকে এক বা একাধিক ভাষা ব্যবহার করে ওয়েবসাইট তৈরী করা হয়। তবে এগুলো ওয়েবসাইট ডেভেলপমেন্ট করার কাজে ব্যবহার করা হয়।

কারন ওয়েবসাইট তৈরি করার আগে সেটাকে ডিজাইন করতে হয়। ওয়েবসাইট ডিজাইন করার জন্য কিছু স্ক্রিপ্টিং ভাষা ব্যবহার করা হয় যেমন, HTML, CSS, JQUERY, BOOTSTRAP, REACTJS, SASS ইত্যাদি।

উপরুক্ত প্রোগ্রামিং ভাষা এবং স্ক্রিপ্টিং ভাষা করেই একটি পরিপূর্ণ কাস্টম ওয়েবসাইট তৈরী করা হয়।

আপনি যদি জানতে চান কিভাবে প্রফেশনাল ওয়েব ডেভেলপার হতে হয় তাহলে নিচের ভিডিওটি দেখুন।

সফটওয়্যার ব্যবহার করে ওয়েবসাইট কিভাবে খুলতে হয়

এখন চলুন জেনে নেই সফটওয়্যার ব্যবহার করে ওয়েবসাইট কিভাবে বানাতে হয়।

অনেকেই প্রোগ্রামিং ভাষা ব্যবহার করে ওয়েবসাইট তৈরী করতে পারে না বা জানে না। কারন প্রোগ্রামিং ভাষাগুলো শেখার ক্ষেত্রে অনেক কঠিন হয়ে থাকে। তাই ভালোভাবে অনেকে শিখতে পারে না।

আবার প্রোগ্রামিং ভাষা ব্যবহার করে একটি কাস্টম ওয়েবসাইট তৈরি করতে গেলে প্রচুর খরচ করতে হয়। সর্বনিম্ন ৫০ হাজার থেকে শুরু করে ২/৩ লাখ টাকা বাজেট লাগে একটি প্রফেশনাল কাস্টম ওয়েবসাইট তৈরি করতে।

এতো বড় বাজেট বেশিরভাগ কোম্পানির থাকে না। তাই তারা সফটওয়্যার ব্যবহার করে ওয়েবসাইট তৈরী করে থাকে।

ওয়েবসাইট বিল্ডার

ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য অনেক সফটওয়্যার রয়েছে। এগুলোকে বলা হয় ওয়েবসাইট বিল্ডার সফটওয়্যার।

জনপ্রিয় কিছু ওয়েবসাইট বিল্ডার সফটওয়্যার হচ্ছেঃ

  1. WordPress (৩০+ মিলিয়ন ওয়েবসাইট তৈরি করা হয়েছে )
  2. Wix (৭+ মিলিয়ন ওয়েবসাইট তৈরি করা হয়েছে)
  3. Squarespace (২.৭+ মিলিয়ন ওয়েবসাইট তৈরি করা হয়েছে)
  4. Joomla! (১.৪+ মিলিয়ন ওয়েবসাইট তৈরি করা হয়েছে)
  5. Shopify (৩.৭+ মিলিয়ন ওয়েবসাইট তৈরি করা হয়েছে)
  6. GoDaddy Website Builder (১.৭+ মিলিয়ন ওয়েবসাইট তৈরি করা হয়েছে)
  7. Weebly (১ মিলিয়ন ওয়েবসাইট তৈরি করা হয়েছে)
  8. Drupal (৬০০+ হাজার ওয়েবসাইট তৈরি করা হয়েছে)
  9. Blogger (৬০০+ হাজার ওয়েবসাইট তৈরি করা হয়েছে)

এই ওয়েবসাইট বিল্ডার সফটওয়্যারগুলো এতো জনপ্রিয় এবং ব্যাবহারের কারন হচ্ছে এগুলো ব্যবহার করে যেকেউ ওয়েবসাইট তৈরী করতে পারবে মাত্র সিম্পল কিছু কাজ করে।

এখানে কোনো ধরনের প্রোগ্রামিং ভাষা ব্যবহার করতে বা শিখতে হবে না। যারা নন-টেকি বা টেকনলজি সম্পর্কে কিছু জানে না তারাও এই সকল সফটওয়্যার ব্যবহার করে প্রফেশনাল ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবে।

এছাড়াও এগুলো ব্যবহার শিখে নিয়ে ফ্রিলান্সিং করেও ঘরে বসে টাকা উপার্জন করা যাবে। আবার বিভিন্ন কোম্পানিতে ওয়েবসাইট ডেভেলপার হিসেবে কাজও করা যাবে।

সবার উপরে যে সফটওয়্যারটি রয়েছে সেটি হচ্ছে ওয়ার্ডপ্রেস। ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করে পুরো পৃথিবীর প্রায় ৩৫% ওয়েবসাইট তৈরী করা হয়েছে। এই ওয়ার্ডপ্রেসের মার্কেটটা অনেক বড়।

যেকেউ চাইলেই কোনোরকম প্রোগ্রামিং ভাষা না শিখেই ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করে একটি প্রফেশনাল ওয়েবসাইট তৈরি করে ফেলতে পারবে।

ওয়েবসাইট তৈরি করতে কি কি লাগে

ওয়েবসাইট তৈরি করতে তিনটি জিনিসের প্রয়োজন হয়

  1. ডোমেইন নেম
  2. হোস্টিং সার্ভার
  3. ওয়েবসাইট ডিজাইন টেম্পলেট

যেকোনো ওয়েবসাইট তৈরি করতে উপরের এই তিনটি জিনিসের প্রয়োজন অবশ্যই হবে।

১। ডোমেইন নেম হচ্ছে ওয়েবসাইট নাম যার মাধ্যমে অনলাইনে ওয়েবসাইটটি সবাই চিনতে পারবে।

২। হোস্টিং সার্ভার হচ্ছে একটি স্টোরেজ বা ফাইল ম্যানেজার যেখানে ওয়েবসাইটের সকল ডাটা রাখা হয় যেমন ইমেজ, ফাইল, ডকুমেন্ট ইত্যাদি।

৩। ওয়েবসাইট ডিজাইন টেম্পলেট যেটাকেই ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য ব্যবহার করা হবে যেমন, ওয়েবসাইট থিম অথবা টেম্পলেট। যদি ওয়ার্ডপ্রেস সফটওয়্যার ব্যবহার করে ওয়েবসাইট তৈরি করা হয় তাহলে ওয়েবসাইট থিম। আর নাহলে ওয়েব টেম্পলেট।

যাইহোক, নিচের ভিডিওটি দেখে ধারনা নিতে পারেন ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করে ওয়েবসাইট কিভাবে বানাতে হয়।

যাইহোক, আপনি যদি আপনার নিজের বিজনেসের জন্য বা নিজের জন্য একটি ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট তৈরী করতে চান তাহলে প্রোগ্রামিং ভাষা ব্যবহার করে কাস্টম ওয়েবসাইট তৈরী করতে পারেন অথবা সফটওয়্যার ব্যবহার করে রেডিমেট ওয়েবসাইট খুলতে পারেন কোনোরকম প্রোগ্রামিং ভাষা না শিখেই।

তো এই ছিলো, ওয়েবসাইট কিভাবে খুলতে হয় বা ওয়েবসাইট কিভাবে বানাতে হয় তার একটি পরিপূর্ণ আর্টিকেল।

যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তাহলে নিচে কমেন্ট করে জানাবেন আমি উত্তর দেয়ার চেষ্টা করবো।

এছাড়াও আপনি যদি ওয়েব ডিজাইন, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, ওয়ার্ডপ্রেস, ইউটিউবিং, টেকনোলজি বিভিন্ন টিপ্স এন্ড ট্রিক্স, ডিজিটাল স্কিল শিখতে চান তাহলে আমার ইউটিউব চ্যানেল আজই সাবস্ক্রাইব করে ফেলুন। কারন আমি প্রতিনিয়ত ডিজিটাল স্কিল বিষয়ক টিউটোরিয়াল পাবলিশ করে যাচ্ছি আমার চ্যানেলে।

Leave a Comment

Don`t copy text!