ফেরাউনের লাশ কোথায় পাওয়া যায়? ফেরাউনের জীবনী

আজকে আমরা জানবো ফেরাউনের লাশ কোথায় পাওয়া যায়? ফেরাউনের জীবনী, ফেরাউন কোথায় ডুবে ছিল, ফেরাউনের ইতিহাস বা ফেরাউনের কাহিনী। আপনি যদি এই সকল বিষয় জানতে আগ্রহী থাকেন তাহলে এই পর্বটি আপনার জন্য।

তো চলুন শুরু করা যাক,

ফেরাউনের ইতিহাস বা ফেরাউনের কাহিনী

প্রথমেই আমরা আলোচনা করবো ফেরাউনের জীবনী নিয়ে বা ফেরাউনের ইতিহাস নিয়ে একদম বিস্তারিত জানবো।

ফেরাউন বলতে সেই সময়ে মিশরের রাজাদের ফেরাউন বলা হতো। একক কোনো ব্যক্তিকে ফেরাউন বলা হতো না। বর্তমানে মিশরে শত শত ফেরাউন এখনো মমি করা আছে। তবে কোরআনে বর্নিত সেই ফেরাউন মনে করা হয় ফেরাউন “রামোসেস টু”।

সাধারনত মুসলমানরা ফেরাউন হিসেবে দ্বিতীয় রামোসেস কে জানেন যিনি মুস (আঃ) এর সময় মিশরের ক্ষমতায় ছিল। ফেরাউন একটি উপাধি এটা কোন মানুষকে চিহ্নিত করে বুঝা যায় না।

ফারাও রাজাদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন এই দ্বিতীয় রামেসিস (র‍্যামেসিজ)। তিনি মূলত নীলনদ ঘেঁষে পাই-রামেসিস শহরের পত্তন করেন, যার কথা বাইবেলে উল্লেখ আছে। আসলে এ কারণেই সেই ফারাওকে রামেসিস বলে আন্দাজ করা হয়।

প্রাচীন মিশরের নতুন রাজ্যের সময় ফেরাউনরা ধর্মীয় এবং রাজনৈতিক নেতা ছিল। “বড় বাড়ি” বলতে তখন রাজাদের বাড়িকে বোঝানো হত। ফারাওরা বিশ্বাস করত যে তাদের মরণের পর তাদের আত্মা দেবতা হরুসের সাথে মিলে যাবে।

এরা নিজেদেরকে সূর্যের বংশধর মনে করত। নিজেদেরকে দেবতা বলে মনে করায় তারা বংশের বাইরে কাউকে বিবাহ করত না। ফলে ভাইবোনেদের মধ্যেই বিবাহ সম্পন্ন হত।

ফারাওয়ের মৃত্যুর পরও জীবন আছে বলে বিশ্বাস করত। তাই মৃতদেহকে পচন থেকে বাঁচাবার জন্য তারা দেহকে মমি বানিয়ে রাখত এবং স্বর্ণালঙ্কারে মুড়ে সমাধিকক্ষের শবাধারে রাখা হত।

ফেরাউনের লাশ কোথায় পাওয়া যায়

ফেরাউনের লাশ প্রথম আবিষ্কার করা হয় ১৮৯৮ সালে লোহিত সাগরে জাবালিয়ান নামক স্থানে। বর্তমানে ফেরাউনের লাশ লাশটি পাওয়া যায় কায়রোর ইজিপশিয়ান জাদুঘরের রাজকীয় মমি চেম্বারে। সেখানে সর্ব সাধারনের দেখার জন্য সংরক্ষিত করা আছে।

ফেরাউনের লাশ কোথায় পাওয়া যায়

ফেরাউন কোথায় ডুবে ছিল

ফেরাউন ডুবে ছিল লোহিত সাগরে।

সূরা আশ-শুআরা; আয়াত ৬৩:৬৮ এ বর্ণিত করা আছেঃ

অত্যাচারী রাজা ফেরাউন পূর্ণ শক্তি ও বিশাল সেনাবাহিনী নিয়ে হযরত মুসা (আঃ) ও তার সঙ্গীদের ধাওয়া করে। যখন বনি-ইসরাইল জাতি বিশাল নীল নদের সামনে আসে তখন তারা বাকি তিন দিক দিয়ে ফেরাউনের বাহিনী দ্বারা নিজেদেরকে অবরুদ্ধ দেখতে পায়।

আপনি কি জানেন?

গোসলের ফরজ কয়টি ও কি কি

সৌরজগতে গ্রহ কয়টি? ৮টি নাকি ১১টি (বিস্তারিত জানুন)

2022 সালে প্রফেশনাল ওয়েব ডেভেলপার ( পর্ব-২ ) 

এরপর আল্লাহর নির্দেশে হযরত মুসা (আঃ) হাতের লাঠিটি উত্তাল লোহিত সাগরে নিক্ষেপ করেন। নিক্ষেপ করার সাথে সাথেই পানির ঢেউগুলো একটার উপর আরেকটা উঠে গিয়ে সুউচ্চ পাহাড় সৃষ্টি করে অনেকগুলো রাস্তা তৈরি হয়ে গেলো।

এরপর মুসা নবীর নির্দেশে তার সঙ্গীরা এসব রাস্তা দিয়ে নদী পার হয়ে ওপারে চলে যান। ফেরাউন ও তার বাহিনী এত বড় অলৌকিক ঘটনা দেখার পড়েও সেই রাস্তাগুলো দিয়ে এগিয়ে যেতে থাকেন।

হযরত মুসা (আঃ) এর সঙ্গীরা নদী থেকে তীরে উঠে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই আল্লাহর নির্দেশে থেমে থাকা পানি আবার সচল হয়ে আগের মতো প্রবাহিত হতে শুরু করে। পানির তোড়ে ভেসে যায় অহংকারী ফেরাউন ও তার বিশাল বাহিনী। এভাবে অত্যাচারী ফেরাউন ডুবে মারা যায় লোহিত সাগরে এবং চিরতরে তার অস্তিত্ব ধ্বংস হয়ে যায়।

তো এই ছিলো, ফেরাউনের লাশ কোথায় পাওয়া যায়? ফেরাউনের জীবনী, ফেরাউন কোথায় ডুবে ছিল, ফেরাউনের ইতিহাস বা ফেরাউনের কাহিনী ইত্যাদি বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর।

যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তাহলে অবশ্যই নিচে কমেন্ট করে জানাবেন। আমি উত্তর দেয়ার চেষ্টা করবো।

এছাড়াও আপনি যদি ওয়েব ডিজাইন, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, ওয়ার্ডপ্রেস, ইউটিউবিং, টেকনোলজি বিভিন্ন টিপ্স এন্ড ট্রিক্স, ডিজিটাল স্কিল শিখতে চান তাহলে আমার ইউটিউব চ্যানেল আজই সাবস্ক্রাইব করে ফেলুন। কারন আমি প্রতিনিয়ত ডিজিটাল স্কিল বিষয়ক টিউটোরিয়াল পাবলিশ করে যাচ্ছি আমার চ্যানেলে।

Skillgori Staff

I am Sajid Imon, Professional Web Designer and WordPress developer.

Don`t copy text!