কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করতে হয় ( পর্ব-১ )

ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট তৈরি

আপনি কি ওয়েবসাইট তৈরি করার কথা ভাবছেন? তাহলে এই টিউটোরিয়ালটি আপনার জন্য। কারন আজকের এই টিউটোরিয়ালে আপনি জানতে পারবেন কিভাবে ওয়েবসাইট তৈরি করতে হয় একদম সহজ উপায়ে। এখানে আমরা একটি কমপ্লিট ওয়েবসাইট বিল্ডার ব্যবহার করবো আমাদের ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য। যার নাম হচ্ছে ওয়ার্ডপ্রেস। কারন ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য আপনার কোনো কোডিং বা প্রোগ্রামিং জানা লাগবে না পূর্ব থেকে। চলুন দেখে নেই কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট তৈরি করতে হয়

ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট তৈরি করার প্রক্রিয়াঃ

আমরা আজকের এই পর্বে শিখবো কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করে একটি প্রফেশনাল ইকমার্স ওয়েবসাইট তৈরি করতে হয়। কারন বর্তমানে অনেকেই আছে যারা ফেসবুকের মাধ্যমে তাদের তৈরি করা পণ্য কাস্টমারদের কাছে বিক্রি করছে। কিন্তু ফেসবুকে অনেক অসুবিধার সম্মুখীন হতে হয় যেটা একটি ওয়েবসাইট থাকলে হয় না। কিছু অসুবিধা আমি নিজের অভিজ্ঞতা থেকে তুলে ধরলাম যেগুলো সচারচর হয়ে থাকে।

ফেসবুক পেজে পণ্য বিক্রি করার অসুবিধাঃ

ফেসবুক বর্তমানে ছোট উদ্যোক্তাদের বিজনেস করার জন্য অনেক সুবিধা দিয়েছে। যেকেউ চাইলেই ফেসবুকে একটি পেজ খুলে তাদের পণ্য ফেসবুক ব্যবহারকারিদের কাছে খুব সহজেই বিক্রি করতে পারে। এছাড়াও ফেসবুকে মার্কেটপ্লেস নামে নতুন আরেকটি অপশন যোগ হয়েছে যেখানে নতুন-পুরাতন সকল পণ্য বিক্রি করার জন্য লিস্টিং করা যায়।

কিন্তু এই ফেসবুকের মাধ্যমে পণ্য বিক্রি করতে গিয়ে নতুন উদ্যোক্তাদের অনেক ঝামেলার মুখে পড়তে হয় যেমন, পেমেন্ট নিয়ে ঝামেলা হয় ফলে প্রতারনা হওয়ার অনেক ঝুকি থাকে। আবার পণ্য ডেলিভারি নিয়ে ঝামেলা থাকে, সঠিক কাস্টমার পাওয়া যায় না। আর যেহেতু ফেসবুক পেজের মাধ্যমে পণ্য বিক্রি করা হয় তাই কাস্টমারদের সীমাবদ্ধতা থাকে। কারন কেউ যদি পণ্য কিনতে আগ্রহী থাকে তাহলে তাকে আগে ফেসবুক একাউন্ট খুলতে হবে। একাউন্ট ছাড়া কোনো পণ্য কিনতে পারবে না।

তো যাইহোক, এই কারনেই আজ আমরা শিখবো কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করে কোনোরকম কোডিং ছাড়াই একটি প্রফেশনাল ইকমার্স ওয়েবসাইট তৈরি করতে হয়।

আমরা আমাদের ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ৩টি ধাপে তৈরি করবো।

  1. প্রথমেই হোস্টিং সার্ভার থেকে ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করবো
  2. এরপর একটি প্রফেশনাল থিম ইন্সটল করবো
  3. সবশেষে ওয়েবসাইটটি নিজের মতো করে কাস্টমাইজ করবো।

৩টি ধাপ একসাথে দেখালে আর্টিকেলটি অনেক বড় হয়ে যাবে। তাই আজকের এই পর্বে আমরা শিখবো কিভাবে হোস্টিং সার্ভার থেকে ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করতে হয়।

স্টেপ-১: ডোমেইন এবং হোস্টিং কেনাঃ

যেকোনো ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য প্রথমেই একটি ডোমেইন এবং হোস্টিং কিনতে হয়। ডোমেইন হচ্ছে ওয়েবসাইটের নাম এবং হোস্টিং হচ্ছে স্টোরেজ যেখানে ওয়েবসাইটের যাবতীয় জিনিসপত্র থাকে। আপনার ওয়েবসাইটে যা আপলোড দেয়া হবে সব হোস্টিং এ জমা হবে। তাই আপনাকে প্রথমেই ডোমেইন এবং একটি হোস্টিং কিনতে হবে ইন্টারনেটে ওয়েবসাইটটি লাইভ করার জন্য। ডোমেইন এবং হোস্টিং এর চার্জ প্রতি বছরেই দিতে হয়।

বাংলাদেশে অনেক কোম্পানি রয়েছে যারা সল্প দামে সুপার ফাস্ট ডোমেইন এবং হোস্টিং দিচ্ছে। এইরকম একটি হোস্টিং কোম্পানি হচ্ছে ExonHost। এরা অনেক সল্প দামে ভালো হোস্টিং সার্ভার দিচ্ছে তাদের কাস্টমারদের।

এক্সনহোস্ট

 

তাদের সার্ভিস এবং সাপোর্ট দুটোই অনেক ভালো। যাইহোক, এক্সনহোস্ট থেকে ডোমেইন এবং হোস্টিং কেনার জন্য এখানে ক্লিক করেন। ক্লিক করে নিজের ওয়েবসাইটের একটি নাম দিয়ে ডোমেইন এবং সাথে হোস্টিং রেজিস্টার করে ফেলুন। এক্সনহোস্ট ছাড়াও আরো অনেক নামীদামী এবং সেরা হোস্টিং কোম্পানি রয়েছে বাংলাদেশে। আপনি চাইলে তাদের কাছ থেকেও ডোমেইন এবং হোস্টিং কিনতে পারেন।

স্টেপ-২: হোস্টিং সার্ভার থেকে ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করাঃ

ডোমেইন এবং হোস্টিং কেনার পর এখন আপনাকে ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করতে হবে। ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করার জন্য সিপেনেল প্রয়োজন। আর এই সিপেনেলের এক্সেস বা ইউজার নেম এবং পাসওয়ার্ড আপনাকে হোস্টিং কেনার পর ইমেইল করে সব পাঠিয়ে দিবে।

হোস্টিং সার্ভার থেকে ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করার জন্য প্রথমেই হোস্টিং সার্ভারের সিপেনেলে যেতে হবে। এরপর উপরে সার্চবার দেখতে পাবেন

 

এই সার্চবারে লিখতে হবে “soft“। এইটা লিখলেই Softaculous Apps Installer নামে একটি অপ্সন চলে আসবে। এটার মাধ্যমেই আমাদের ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করতে হবে। আসার পর এখন আপনাকে এটাতে ক্লিক করতে হবে।

ক্লিক করার পর এখন আপনি অনেকগুলো ওয়েবসাইট বিল্ডার সফটওয়্যার দেখতে পাবেন। ওয়ার্ডপ্রেসের পাশাপাশি আরো অনেক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট বিল্ডার সফটওয়্যার রয়েছে যেগুলো ব্যবহার করে প্রফেশনাল ওয়েবসাইট তৈরি করা যায় কিন্তু ওগুলোর থেকে ওয়ার্ডপ্রেস অনেক সহজ এবং জনপ্রিয়।

যাইহোক, ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করার জন্য এখন আপনাকে Install বাটনে ক্লিক করতে হবে।

ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট

ইন্সটল বাটনে ক্লিক করার পর এরপর আপনার সামনে ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করার জন্য একটি ফর্ম চলে আসবে। ফরমে প্রতিটা অপ্সন এখন আপনাকে ভালোভাবে পুরন করতে হবে।

চলুন আপনাকে আমি বলে দেই কোথায় কি দিবেন?

প্রথমেই আপনার ওয়েবসাইটটি কি HTTP/HTTPS চান সেটা বাছাই করতে হবে। HTTP/HTTPS হচ্ছে যেকোনো ওয়েবসাইটের সিকিউরিটি লেয়ার। বিভিন্ন ওয়েবসাইটের URL এর পাশে তালার মতো একটি অপ্সন দেখতে পাবেন। সেটাই হচ্ছে HTTPS।  HTTP ব্যবহার করলে ওয়েবসাইটটির নিরাপত্তা থাকবে না। আর HTTPS ব্যবহার করলে ওয়েবসাইটের নিরাপত্তা থাকবে। ভিজিটররা নিরাপদে আপনার ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারবে।

এরপর আপনাকে আপনার ডোমেইন সিলেক্ট করতে হবে। ডোমেইন সিলেক্ট করার পরের ঘর আপনি ব্লাঙ্ক রাখবেন। এখানে কিছু দেয়ার প্রয়োজন নেই। এরপর ওয়ার্ডপ্রেস ভার্সন সিলেক্ট করতে হবে। যদিও সবসময় লেটেস্ট ভার্সন সিলেক্ট করা থাকে।তারপরেও যদি না থাকে তাহলে সিলেক্ট করে নিবেন। ভার্সন সিলেক্ট করার পর বাম পাশে Site setting থেকে ওয়েবসাইটের টাইটেল এবং ডেসক্রিপশন দিতে হবে। এগুলো পরে নিজের মতো এডিট করা যাবে। এরপর ডান পাশে Admin account থেকে ইউজারনেম এবং পাসওয়ার্ড দিতে হবে এবং এগুলো কোনো এক নিরাপদ জায়গায় সেভ করে রাখতে হবে। এগুলোর সাহায্যে ওয়েবসাইটে লগিন করতে হবে। তাই এগুলো অনেক গুরুত্বপূর্ণ। এরপর নিচে আপনার ইমেইল দিতে হবে। আপনার ওয়েবসাইটের সকল আপডেট এই ইমেইলে চলে যাবে।

এখন সবকিছু দেয়ার পর একদম নিচে Install বাটন রয়েছে সেখানে ক্লিক করতে হবে। বাটনে ক্লিক করার পর একটু সময় নিবে ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল হতে। ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল হওয়ার পর আপনি ওয়েবসাইটের লগিন ইউআরএল নিচে দেখতে পাবেন। সেখানে ক্লিক করলে সাথে সাথে আপনাকে ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড এ নিয়ে যাবে।

ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট

এখান থেকেই আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট ম্যানেজ করতে পারবেন। ওয়েবসাইটে সকল পোস্ট, ইমেজ, ফাইল, প্রোডাক্ট এখান থেকেই আপলোড করতে পারবেন।

এই ছিলো, কিভাবে আপনি ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য হোস্টিং সার্ভার থেকে ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করতে পারেন তার কমপ্লিট গাইডলাইন। এরপরেও যদি আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করতে সমস্যা হয় তাহলে উপরের ভিডিওটি দেখে ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করতে পারবেন।

এই পর্বে এতোটুকুই দেখিয়ে দিলাম। ইনশাল্লাহ আগামীপর্বে আমরা দেখবো কিভাবে প্রফেশনাল ইকমার্স ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য থিম ইন্সটল করতে হয়। যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। আমি উত্তর দেয়ার চেষ্টা করবো।

এছাড়াও আপনি যদি ওয়েব ডিজাইন, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, ওয়ার্ডপ্রেস, ইউটিউবিং, টেকনোলজি বিভিন্ন টিপ্স এন্ড ট্রিক্স, ডিজিটাল স্কিল শিখতে চান তাহলে আমার ইউটিউব চ্যানেল আজই সাবস্ক্রাইব করে ফেলুন। কারন আমি প্রতিনিয়ত ডিজিটাল স্কিল বিষয়ক টিউটোরিয়াল পাবলিশ করে যাচ্ছি আমার চ্যানেলে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here