Mifo পোর্টফলিও ওয়ার্ডপ্রেস থিম ডাউনলোড করে নিন

mifo

আপনি কি নিজের পোর্টফলিও ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য প্রফেশনাল ওয়ার্ডপ্রেস থিম খুজচ্ছেন। তাহলে এই পর্বটি আপনার জন্য। কারন এই পর্বে আমি একটি প্রফেশনাল পোর্টফলিও ওয়ার্ডপ্রেস থিম রিভিউ করবো যেটা একটি প্রিমিয়াম থিম কিন্তু আপনি ফ্রিতে ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারবেন। থিমটির নাম হচ্ছে Mifo। এই থিমটি বিশেষভাবে পোর্টফলিও ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য বানানো হয়েছে।

অনলাইনে যেকোনো পেশায় কাজ করতে হলে প্রথমে একটি পোর্টফলিও ওয়েবসাইট থাকাটা অত্যন্ত জরুরী। যাতে আপনার নিজের সম্পর্কে, আপনার কাজ সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরতে পারেন। যখন কোনো ক্লাইন্ট আপনাকে কাজ দিবে তখন এই পোর্টফলিও ওয়েবসাইট দেখালে কাজ পাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি থাকে। এই Mifo থিমটি ব্যবহার করে আপনি নিজের জন্য এবং সাথে ক্লাইন্টের জন্য পোর্টফলিও ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন খুব সহজেই। এটাতে প্রায় সব ধরনের ফিচার আছে একটি প্রফেশনাল পোর্টফলিও ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য।

mifo theme

চলুন এখন জেনে নেই Mifo ওয়ার্ডপ্রেস থিমের অসাধারন বৈশিষ্ট্য

  1. যেকোনো ধরনের এজেন্সি, ফ্রিলান্সার, ডিজাইনার, ডেভেলপারদের জন্য এই থিমটি বেস্ট একটা থিম
  2. থিমটিতে রয়েছে ৭টি রেডিমেট ডেমো ওয়েবসাইট যেগুলো ব্যবহার করার মাধ্যমে মাত্র ১ ক্লিকেই ওয়েবসাইট তৈরি করে ফেলা যাবে
  3. অনেকগুলো রেডিমেট পেজ রয়েছে যেমন, portfolio, about, team,Client, blog ইত্যাদি
  4. ইকমার্স প্রোডাক্ট বিক্রি করার জন্য রয়েছে একটি প্রফেশনাল রেডিমেট শপ পেজ
  5. প্রতিটা ডিভাইসে থিমটি একদম ফুল রেস্পন্সিভ এবং মোবাইল অপ্তিমাইজড
  6. থিমটির সাথে দুটো প্রিমিয়াম প্লাগিন পাবেন একদম ফ্রিতে। একটি হচ্ছে স্লাইডার বানানোর জন্য- revolution slider, আরেকটি হচ্ছে পেজ ডিজাইন করার জন্য- wpbakery page builder
  7. এছাড়াও Mifo থিমটিতে আছে ৩টি হেডার এবং ৪টি ফুটার লেয়াউট ডিজাইন

এছাড়াও আরো অনেক ফিচার আছে যেগুলো একটি পোর্টফলিও ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য প্রয়োজন হয়। Mifo থিমটি ডাউনলোড করার জন্য এখানে ক্লিক করুন। আপনাদের সুবিধার্থে গুগল ড্রাইভ লিঙ্ক দেয়া হলো।

থিমটি ডাউনলোড করার পর আপনি একটি জিপ ফাইল পাবেন। প্রথমেই সেটিকে আনজিপ করতে হবে।আনজিপ করার পর আপনি দুটো ফাইল পাবেন। একটি হচ্ছে পিডিএফ ফাইল যেটা থিমের লাইসেন্স এবং অন্যটি হচ্ছে থিমের মেইল ফাইল। ওইটাকে প্রথমে আনজিপ করতে হবে। আনজিপ করার পর আপনি সেখানে থিমের দুটি মেইন ফাইল দেখতে পাবেন। একটি হচ্ছে চাইল্ড এবং আরেকটি হচ্ছে অরিজিনাল। আমাদের দুটোই প্রয়োজন হবে। এখন চলুন আপনাকে বলে দেই কিভাবে থিমটি সেটআপ দিতে হয়।

Mifo পোর্টফলিও ওয়ার্ডপ্রেস থিম সেটআপ দেয়ার প্রক্রিয়া

প্রথমে ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড এ লগিন করতে হবে। এরপর Appearance>themes এ যেতে হবে। তারপর উপর থেকে Add new বাটনে ক্লিক করতে হবে। এড নিউ বাটনে ক্লিক করার পর থিমটিকে আপলোড দিতে হবে। প্রথমে থিমের মেইল ফাইল আপলোড করতে হবে। এরপর থিমের যেই চাইল্ড ভার্সন রয়েছে সেটিকে আপলোড করতে হবে এবং একটিভ করতে হবে।

পড়তে পারেনঃ

  1. হোস্টিং সার্ভার থেকে ওয়ার্ডপ্রেস কিভাবে ইন্সটল করতে হয়
  2. ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে কিভাবে প্রফেশনাল ওয়েবসাইট তৈরি করতে হয়
  3. প্রফেশনাল ইকমার্স ওয়ার্ডপ্রেস থিম ডাউনলোড করে নিন সম্পূর্ণ ফ্রিতে

থিমটি একটিভ করার সাথে সাথে উপরে একটি নোটিফিকেশন দিবে সেটা হচ্ছে এই থিমের সাথে পুরোপুরি কাজ করার জন্য আমাদের কিছু প্লাগিন ইন্সটল করতে হবে। তাই সবগুলো প্লাগিন ইন্সটল করতে হবে এখন। সবগুলো প্লাগিন একসাথে সিলেক্ট করে তারপর ইন্সটল দিতে হবে। সবগুলো প্লাগিন ইন্সটল হওয়ার পর এখন একটিভেট করতে হবে।

সবগুলো প্লাগিন একটিভেট করার পর এখন আমাদের ডেমো ইমপোর্ট করতে হবে। Mifo থিমের সাথে ৭টি রেডিমেট ডেমো রয়েছে যেগুলো ব্যবহার করার মাধ্যমে এক ক্লিকেই আমাদের ওয়েবসাইট তৈরি করে ফেলতে পারবো। এরপর আমরা নিজের মতো করে ওয়েবসাইটটি কিছুটা কাস্টমাইজ করে নিতে পারবো। ডেমো ইমপোর্ট করার জন্য Appearance>import demo data অপশনে যেতে হবে। এরপর একটু নিচে আসলে আমরা import demo data নামে একটি বাটন দেখতে পাবো সেখানে ক্লিক করতে হবে। ক্লিক করার কিছুক্ষণের মধ্যেই রেডিমেট ডেমো ফুল ইমপোর্ট হয়ে যাবে। ইমপোর্ট হওয়ার পর আমাদের ওয়েবসাইটের ডিজাইন একদম পরিবর্তন হয়ে যাবে। একটি প্রফেশনাল পোর্টফলিও ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট পেয়ে যাবো আমরা মাত্র এক ক্লিকের মাধ্যমে।

mifo portfolio wordpress theme

ডেমো ডাটা ইমপোর্ট করার সাথে আমাদের একটি ডিফল্ট ডিজাইনের হোমপেজ দেখা যাবে ওয়েবসাইটে। এটিকে পরিবর্তন করার জন্য প্রথমে ড্যাশবোর্ড থেকে সেটিং এ যেতে হবে। এরপর সেটিং থেকে রিডিং অপশনে ক্লিক করতে হবে। তারপর হোমপেজের ওখানে ক্লিক করলে অনেকগুলো রেডিমেট পেজ দেখা যাবে। সেখান থেকে হোমপেজ ৫ সিলেক্ট করতে হবে। এরপর সেভ চেঞ্জ দিলেই আমাদের ওয়েবসাইটের ডিজাইন একদম পরিবর্তন হয়ে যাবে।

আশা করছি বুঝতে পেরেছেন সবকিছু। তারপরেও যদি বিষয়গুলো আপনার কাছে কঠিন মনে হয় তাহলে উপরের ভিডিওটি দেখতে নিতে পারেন। ভিদিওতে আমি থিমের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সবকিছু আলোচনা করেছি।

তো এই ছিল, কিভাবে Mifo থিমটির কিছু বৈশিষ্ট্য এবং থিমটি কিভাবে সেটআপ দিতে হয় তার একটি কমপ্লিট গাইডলাইন। স্কিলগড়ির পক্ষ থেকে থিমটি একদম সম্পূর্ণ ফ্রিতে আপনাদের দেয়া হলো। নিশ্চিন্তে ব্যবহার করতে পারেন আপনার নিজের ওয়েবসাইটে বা ক্লাইন্টের ওয়েবসাইটে। যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তাহলে অবশ্যই নিচে কমেন্ট করে জানাবেন আমি উত্তর দেয়ার চেষ্টা করবো।

এছাড়াও আপনি যদি ওয়েব ডিজাইন, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, ওয়ার্ডপ্রেস, ইউটিউবিং, টেকনোলজি বিভিন্ন টিপ্স এন্ড ট্রিক্স, ডিজিটাল স্কিল শিখতে চান তাহলে আমার ইউটিউব চ্যানেল আজই সাবস্ক্রাইব করে ফেলুন। কারন আমি প্রতিনিয়ত ডিজিটাল স্কিল বিষয়ক টিউটোরিয়াল পাবলিশ করে যাচ্ছি আমার চ্যানেলে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here